শিরিন শারমিনকে উদ্বেগের কথা জানিয়েছে যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের সহিংস পরিস্থিতি এবং গণতন্ত্র চর্চার পরিবেশ সংকুচিত হয়ে আসার বিষয়ে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে নিজেদের উদ্বেগের কথা জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের স্পিকার সম্প্রতি যুক্তরাজ্য সফরে গেলে ৯ মার্চ দেশটির ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ দপ্তরের মন্ত্রী হুগো সোয়ার তাঁর কাছে এই উদ্বেগের কথা জানান।

বাংলাদেশ সম্পর্কিত এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে গতকাল বুধবার হুগো সোয়ার বাংলাদেশের স্পিকারের সঙ্গে তাঁর আলাপের প্রসঙ্গটি তুলে ধরেন।

কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়শনের (সিপিএ) চেয়্যারম্যান হিসেবে শিরীন শারমিন চৌধুরী যুক্তরাজ্য সফর করেন। যুক্তরাজ্যের লিবারেল ডেমোক্রেটিক দলীয় এমপি ডেভিড ওয়ার্ড সরকারের কাছে জানতে চান, বাংলাদেশের সাংবিধানিক সংকট মোকাবিলায় ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দপ্তর সরকার ও বিপক্ষ দলগুলোকে কী ধরনের সহায়তা দিচ্ছে?

জবাবে মন্ত্রী হুগো সোয়ার বাংলাদেশে চলমান সহিংসতা এবং রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার ঘটনায় যুক্তরাজ্যের গভীর উদ্বেগের কথা তুলে ধরে বলেন, পারস্পরিক আস্থা বৃদ্ধির মাধ্যমে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং অংশগ্রহণমূলক রাজনৈতিক পরিবেশ তৈরি করে সহিংসতা বন্ধের জন্য তাঁরা দলগুলোর প্রতি বারবার আহ্বান জানিয়ে আসছেন। এ ছাড়া সংকট সমাধানে কার্যকর ভূমিকা রাখার জন্য দেশটি জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে উৎসাহিত করে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

এদিন অপর এক প্রশ্নের জবাবে দেশটির আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী ডেসমন্ড সোয়েন জানান, বাংলাদেশের ১ হাজার ৮০০ কারখানায় কর্মপরিবেশ এবং শ্রমিকদের নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নয়নে যুক্তরাজ্য ৭০ লাখ পাউন্ডের বেশি সহায়তা দিচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here