পরী কিছু না বলেই স্পট থেকে চলে যায়: অলীক

২১ এপ্রিল ‘শিডিউল ফাঁসিয়ে এমপি নিক্সনের দাওয়াতে পরীমণি’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। এ খবর প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেই ফিল্ম পাড়ায় নানা গুঞ্জন শুরু হয়। এ নিয়ে বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও জাতীয় দৈনিকেও খবর প্রকাশ হয়। এবং বিষয়টি পরীমণি সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করেন। শুধু তাই নয় ‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’ ছবির নির্মাতা এস এ হক অলীককে নিয়ে আপত্তিকর কথাবার্তা বলেন এই নবাগত অভিনেত্রী।

এ বিষয় নিয়ে নির্মাতা এস এ হক অলীকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলামেইলকে বলেন, ‘আমার ১৯ বছরের ক্যারিয়ারে এ ধরনের অভিযোগ শুনতে পেলাম। এর আগে আমার বিরুদ্ধে কেউ এ ধরনের অভিযোগ করেনি। পরীমণিই ভালো করে বলতে পরবে কেনো তিনি আমার বিরুদ্ধে হেনস্তা ও মানসিক নির্যাতনের বা মামলা করার কথা বলেছেন। ঘটনা সম্পর্কে বলতে গিয়ে পরিচালক বলেন, ২০ এপ্রিল রাত ১১টায় পরীমণি ঢাকায় চলে যায় আমাকে কিছু না বলে। আমি তার সহকারির কাছ থেকে এ খবর জেনেছি। তার সহকারি আমাকে জানায় সে ২১ এপ্রিল ফিরবে। একথা শুনে তার সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য ফোন দিলাম কিন্তু তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তারপর প্রযোজক তার সঙ্গে যোগাযোগ করে।’

নির্মাতা অলীক আরও বলেন, ‘যত বড় অভিনেতা বা অভিনেত্রী হোক না কেন পরিচালক তার একটি চরিত্র ফুটিয়ে তোলার জন্য যতবার খুশি ততবার শট নিতে পারেন। দর্শক যাতে পর্দায় চরিত্রটি দেখে বুঝতে পারে এখানে কৃত্তিম কিছু করা হয়নি। চরিত্রটি ফুঁটিয়ে তোলার জন্য বারবার শট নেওয়া কি পরিচালকের অপরাধ? পরীমণি আমার বিরুদ্ধে এক শট ২৯বার ৩২ বার নেয়ানো হয়েছে বলে সে অভিযোগ করেছে। এ বিষয়ে এতটুকু বলতে পারি আমার কাছে র ফুটেজ আছে। তবে একবারের জায়গায় দু বা তিনবার সর্বোচ্চ পাঁচবার শট নেওয়া হতে পারে। তাই বলে ৩২ বার বিষয়টা হাস্যকর। পরী যে ধরনের অভিযোগ তুলেছে এটা তার ব্যাপার।’

খোরশেদ আলম খসরু প্রযোজিত ছবিটিতে শাকিব খান, পরী মনি ছাড়াও অভিনয় করেছেন সাদেক বাচ্চু, চম্পাসহ আরও অনেকে। ছবিটির কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও গান লিখেছেন পরিচালক নিজেই। আবহসঙ্গীত পরিচালনা করেছেন ইমন সাহা। কণ্ঠ দিয়েছেন হাবিব ওয়াহিদ, পড়শি, এস আই টুটুল, কোনাল ও হৃদয় খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here