আওয়ামী লীগ নেতার ‘মালাউন’ গালি নিয়ে হাতাহাতি, তোলপাড়!

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ উদযাপন অনুষ্ঠানে ‘মালাউন’ গালি নিয়ে দেশ-বিদেশে তোলপাড় চলছে। ৫ জানুয়ারি লন্ডনের দ্যা আট্রিয়াম হলে আয়োজিত ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ যুক্তরাজ্যের সাধারণ সম্পাদক ও লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সুশান্ত দাশ গুপ্তকে এ গালি দেন আওয়ামী লীগ কর্মী দাবিদার শাহনেওয়াজ নামক এক ব্যক্তি। এনিয়ে অনুষ্ঠানে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। অনুষ্ঠান শেষে শাহনেওয়াজের সাথে সুর মিলিয়ে সুশান্তকে একই গালি দেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

বিজয় দিবসের এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

সূত্র জানায়- অনুষ্ঠান চলাকালে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হরমুজ আলী ও যুব ক্রীড়া সম্পাদক তারিফ আহমদ শাহনেওয়াজকে বিএনপির এজেন্ট উল্লেখ করে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের হয়ে যেতে বলেন। তখন শাহনেওয়াজ নিজেকে আওয়ামী লীগ কর্মী পরিচয় দিয়ে এর প্রতিবাদ করেন। এনিয়ে হট্টগোল শুরু হলে তারিফ আহমদ ও হরমুজ আলীর বক্তব্যকে সমর্থন দেন বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ যুক্তরাজ্যের সাধারণ সম্পাদক সুশান্ত দাশ গুপ্ত ।

একপর্যায়ে শাহনেওয়াজ উদ্যত হয়ে সুশান্তকে ‘মালাউন’ বলে গালি দেন। এনিয়ে অনুষ্ঠানে হাতাহাতি শুরু হয়। পরে উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা পরিস্থিতি সামাল দেন।

অনুষ্ঠান শেষে এ ঘটনার জের ধরে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী সুশান্তকে ফের ‘মালাউন’ বলে কটুক্তি করলে আবারও উত্তেজনা দেখা দেয়।

সুশান্ত দাশ গুপ্ত গণমাধ্যমকে জানান- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির ধারক ও বাহক হিসাবে রাজনীতি করছে। দলের দায়িত্বশীল কোন নেতার এমন সাম্প্রদায়িক উক্তি আমাকে মর্মাহত করেছে।

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষই পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন বলে জানা গেছে।

শাহনেওয়াজ ঘটনাটি নিজেদের দলীয় বিষয় বলে সেদেশের সাংবাদিকদের কাছে মন্তব্য করেন।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সাথে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here