বান্ধবীকে আলিঙ্গন : স্কুল ছাত্রের শাস্তি নিয়ে বিতর্ক

বান্ধবী স্কুলের প্রতিযোগিতায় খুব ভাল গান গেয়েছিল, তাই তাকে আলিঙ্গন করেছিল দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রটি।

ছাত্রটির দাবি, একবছরের ছোট বান্ধবীকে অভিনন্দন জানাতেই জড়িয়ে ধরেছিল সে।

স্কুল কর্তৃপক্ষ বলছে, অভিনন্দন জানানোর জন্য অতক্ষণ ধরে আলিঙ্গনটা বাড়াবাড়ি।

“অভিনন্দন জানাতে হলে দুতিন সেকেন্ডের জন্য কেউ আলিঙ্গন করছে, সেটা মানা যায়। কিন্তু ওই ছাত্র-ছাত্রী এতক্ষণ ধরে আলিঙ্গন করেছিল যে শিক্ষকদের এগিয়ে এসে সরিয়ে দিতে হয়েছিল দুজনকে,” বলছেন কেরালার রাজধানী থিরুভনন্তপুরমের নামজাদা সেন্ট টমাস সেন্ট্রাল স্কুলের প্রিন্সিপাল সেবাস্টিয়ান জোসেফ।

শুধু আলিঙ্গনেই শেষ হয় নি ব্যাপারটা। বান্ধবীকে অভিনন্দন জানানোর সেই ছবি আবার ইনস্টাগ্রামে পোস্টও করেছিল ঐ ছাত্র।

একই স্কুলে, এক ক্লাস নীচে পড়ে ছাত্রীটি। দুজনেরই দাবি, তারা দুই পরিবারের সম্মতি নিয়েই মেলামেশা করে বেশ কিছুদিন ধরেই।

তবে এতক্ষণ ধরে ‘অভিনন্দন’ জানাতে ‘আলিঙ্গন’ করাটা স্কুল কর্তৃপক্ষের পছন্দ হয় নি, তাই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসাবে ছাত্র আর ছাত্রী – দুজনকেই সাসপেন্ড করেছিল স্কুল। শুরু হয়েছিল নিজস্ব তদন্ত।

ঘটনাটা জুলাই মাসের। কিন্তু সম্প্রতি কেরালা হাইকোর্ট স্কুলের ওই সিদ্ধান্তের পক্ষেই রায় দেয়ায় বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here