মুফতি ইজহারকে জিজ্ঞাসাবাদে কমিটি গঠন

হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির ও নেজামে ইসলাম পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মুফতি ইজহারুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

শনিবার সকালে এ কমিটি গঠন করা হয়।
সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য জানান, সিএমপির গোয়েন্দা শাখার উপকমিশনার কুসুম দেওয়ানকে এ কমিটির প্রধান করা হয়েছে। ১০ সদস্যের এ কমিটি মুফতি ইজহারকে তার মাদরাসায় সংগঠিত বিভিন্ন ঘটনা সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

শুক্রবার দুপুরে লালখান বাজারের জামেয়াতুল উলুম আল ইসলামিয়া মাদরাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
তিনি ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ। শনিবার দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে।

সিএমপির গোয়েন্দা শাখার অতিরিক্ত উপকমিশনার এ বি এম ফয়জুল ইসলাম জানান, খুলশী থানার তিনটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানার কারণে মুফতি ইজহারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দুই বছর ধরে তিনি পলাতক ছিলেন।

মুফতি ইজহার লালখান বাজার মাদরাসার ছাত্রাবাসে বিস্ফোরণ মামলার আসামি। তার পরিচালিত ওই মাদরাসার ছাত্রাবাসে ২০১৩ সালের ৭ অক্টোবর বিস্ফোরণে তিনজন মারা যায়। ওই ঘটনায় পুলিশ নগরীর খুলশী থানায় হত্যা, বিস্ফোরক ও এসিড আইনে তিনটি মামলা করে, যার সব কটিতে ইজাহার ও তার ছেলে হারুণকে আসামি করা হয়। এসব মামলায় আটক হারুণ বর্তমানে কারাগারে আছেন।

এদিকে মুফতি ইজহারুলের গ্রেফতারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী।

সংবাদমাধ্যমের কাছে এক প্রতিক্রিয়ায় তারা বলেন, “একটি মিথ্যা মামলায় মুফতি ইজহারুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করছি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here