সাজের কৌশলে রমনীর চোখ

file-1নারীর সাজের মূল আকর্ষণ চোখে। পোশাকের ধরন অনুযায়ী চোখের সাজে ফুটে ওঠে আপনার রুচি আর আভিজাত্য।যাদের চোখ সুন্দর ও বড় আকৃতির তাদের সাজটা যেনতেন হলেই চলে। অপরদিকে বিপাকে পড়ে যান ছোট চোখের নারীরা। সৌন্দর্য পিয়াসী মন আফসোসে ফেটে পড়ে মনের মতো সাজ না হলে। অথচ উপায় আপনার হাতে। সামান্য কিছু কৌশলেই আভিজাত্যময় আকর্ষণীয় করে তুলুন আপনার চোখ।

হাইলাইটারের ব্যবহার

সুন্দর সাজে চোখের আকৃতি বড় দেখানোর সহজ উপায় হচ্ছে হাইলাইটার পেন্সিল ব্যবহার করা। চোখের নিচে, ভ্রুর উঁচু স্থানের হাড়ের উপর এবং চোখের ভেতরের কোণ থেকে চোখের পাতার অর্ধেকটা অংশ জুড়ে ভালো করে হাইলাইটার দিতে হবে। হাইলাইটার লাগিয়ে একটি ব্রাশের মাধ্যমে ভালো করে চামড়ার সঙ্গে মিশিয়ে দিন। এতে চোখের আকৃতিতে পরিবর্তন আসবে।

সঠিকভাবে আইলাইনার দিন

চোখের আকৃতি ছোট হলে পুরো চোখে আইলাইনার ব্যবহার করা যাবে না। বিশেষ করে ভেতরের কোণ খালি রাখতে হবে। চোখের বাহিরের কোণ আইলাইনারে টেনে লম্বা আকৃতি দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে উপরের পাতায় মোটা করে লাইনার টানুন। নিচের পাতায় ভেতরের দিকে মাঝ বরাবর এসে আইলাইনারের দাগ থেমে যাবে এতে চোখ অনেকটা বড় দেখায়।

হোয়াইট বেস আইশেড

চোখের নিচের পাতার ভেতরের কোণে হালকা করে সাদা কাজল দিতে পারেন। এভাবে আইশেড দিলে চোখ অনেকটা খোলা ও বড় দেখায়। এছাড়াও চোখের ভেতরের কোণে সাদা এবং হালকা রঙের আইশেড দিলে চোখের আঁকার বড় হয়।

পাপড়ি কার্ল করা

পাপড়ি কার্ল করে নিলে চোখের আকার বেশ অনেকটাই বড় দেখায়। সেজন্য আইল্যাশ কার্লার গরম করে চোখের পাপড়ি কার্ল করে নিতে পারেন। কার্ল করার পর চোখে ভালো করে মাশকারা ব্যবহার করুন।

গ্লিটার কাজল

চোখের আকৃতি বড় এবং সুন্দর দেখাতে গ্লিটার কাজল ব্যবহার করতে পারেন। চোখের ভেতরের কোণে চিকন করে বাইরের কোণে মোটা দাগে একটু টানা দাগ দিতে হবে। চোখের কোণে উপর নিচের কাজলের সংযোগ ঘটাতে একটু মোটা করে আঁখি টানতে পারেন। গ্লিটার কাজলের চিকচিক ভাবে আপনার আসল চোখে ধাঁধা সৃষ্টি করবে। ফলে পুরোটা জুড়েই আপনার চোখ মনে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here