শিশুদের জন্য সেরা ব্যায়াম

শৈশবের হই-হুল্লোড়, ছোটাছুটি আর খেলার সাথিদের সঙ্গে ধুলোবালিতে গড়াগড়ির দিনগুলোর কথা মনে পড়লেই হয়তো বুকের ভেতর মোচড় দিয়ে ওঠে। দিনমান দৌড়াদৌড়ির এত শক্তি আমরা কোথায় পেতাম? আর এমন কীই-বা করতাম আমরা যা এত শক্তি জোগাত? শৈশবের নানা খেলাধুলা আর শারীরিক কসরতের মধ্যেই লুকিয়ে ছিল সেই সব ব্যায়াম যা আমাদের শরীরকে বেড়ে উঠতে আর সুগঠিত হতে সহায়তা করত। শিশুদের এসব ব্যায়ামে সহায়তা করুন আর আপনি নিজেও ওদের সঙ্গে যোগ দিয়ে ফিরে যান শৈশবে।

দড়ি লাফ
অল্প সময়ে শরীরের বাড়তি মেদ ঝরানো এবং সহনশক্তি বাড়ানোর কাজে দড়ি লাফের জুড়ি নেই। এটা এমন একটা ব্যায়াম যা ঘরে-বাইরে সবখানেই চর্চা করা যায়। বিপণিবিতান তো বটেই পাড়া-মহল্লার দোকানেই সস্তায় সুন্দর সব স্কিপিং রোপ পাওয়া যায়। কয়েকটা কিনে বাড়িতে রাখুন। শিশুদের খেলতে দিন, সঙ্গে নিজেও খেলুন। এই ব্যায়ামে হৃৎপিণ্ড ও ফুসফুসের সক্ষমতা বাড়বে। পাশাপাশি শরীরের গতি, ভারসাম্য এবং সমন্বয়ের চর্চা হবে। আধা ঘণ্টা দড়ি লাফে প্রায় ৫০০ ক্যালরি পোড়ানো সম্ভব।

বানর ঝুলনি
শরীরে শক্তি বাড়াতে হলে একটু আদিম আর বুনো হতে হবে! অনেক স্কুলের মাঠেই মাঙ্কি বার বা বানর ঝুলনি থাকে। শিশুরা এমনিতেই এটা পছন্দ করে। ঝুলে ঝুলে একটু একটু করে সামনের দিকে এগোনো কিংবা দলবেঁধে একসঙ্গে ঝুলে থাকা। দুই হাত, কাঁধ, পিঠসহ শরীরের ওপরের অংশকে সুগঠিত করতে এটা দারুণ কার্যকর। বাড়ির উঠোনে এমনকি ঘরের বারান্দাতেও ছোট্ট পরিসরে এই বানর ঝুলনি বানিয়ে নিতে পারেন।


সাইকেল চালানো

সাইকেল চালানো এমন এক ব্যায়াম যা সাঁতারের মতোই প্রায় পুরো শরীরে কাজ করে। সাইকেল চালিয়ে ঘেমে-নেয়ে ওঠা যায়। সাইকেল চালানো যেমন শ্বাসযন্ত্রসহ হৃৎপিণ্ডের জন্য ভালো, তেমনি তা মাংসপেশি সুগঠিত করা থেকে শুরু করে শরীরকে শক্তিশালী রাখতে সহায়ক। শিশুদের সাইকেল চালানোর সুযোগ দিন। শিশুর শারীরিক বৃদ্ধির জন্যও এটা দারুণ কার্যকর।

দৌড়ানো

শৈশব, কৈশোর, তারুণ্য, যৌবন সব সময়ের জন্যই দৌড় এক দারুণ ব্যায়াম। শিশুরা মনের আনন্দে দৌড়াতে পারলেও বড়দের জন্য দৌড়ানোটা কষ্টকর হয়ে ওঠে। খোলা মাঠে দৌড়ানোর সুযোগ পেলে খুবই ভালো। শিশুদের মাঠে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। আর তা না হলে উদ্যানে বা ভোরের রাস্তায় দৌড়ানোর অভ্যাস তৈরি করতে পারেন।

হুলা হুপ

হুলা হুপ বা কোমরে চাকতি ঘোরানো দারুণ মজার এক খেলা। একসময়, বিশেষ করে কিশোরীদের মধ্যে এই কোমরে চাকতি ঘোরানো খেলা দারুণ জনপ্রিয় ছিল। একবার এই ঘূর্ণি আয়ত্ত করে ফেলতে পারলে শিশুরা এতেই মত্ত হয়ে থাকতে চাইবে। প্রতি ১০ মিনিটেই ১০০ ক্যালরি পোড়ানো সম্ভব এই চাকতি ঘোরানোয়।

সাঁতার কাটা

সাঁতার শিশুদের জন্য এত ভালো আর প্রয়োজনীয় একটা ব্যায়াম যে, সম্ভব হলে সব স্কুলেই সাঁতারের ব্যবস্থা রাখতে পারলে ভালো হতো। এটা শিশুদের শরীর গঠনে দারুণ উপকারী। পুরো শরীরেই ব্যায়াম হয় সাঁতারে। মাংসপেশির গঠন, ফুসফুস ও হৃৎপিণ্ড শক্তিশালী করা এবং শরীরে সহনশক্তি বাড়ানোয় সাঁতার দারুণ উপকারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here