Home > জীবনধারা > রমজানে এসিডিটি দূর করবে যেসব খাবার

রমজানে এসিডিটি দূর করবে যেসব খাবার

বেশিরভাগ মানুষই গ্যাস্ট্রিক বা এসিডিটির সমস্যায় ভুগে থাকেন। কেউবা গ্যাস্ট্রিক সমস্যায় সারা বছরই কষ্ট ভোগ করেন। তবে রমজান এলে এর হারটা আরও বেড়ে যায়। দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকা এবং ইফতারিতে ভাজাপোড়া খাওয়ার দরুণ এ সময় সমস্যাটা বাড়ে। তখন হয়তো কারও কারও পক্ষে রোজা রাখাই সম্ভব হয় না। অথচ একটু সচেতন হলেই কিন্তু এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। আমাদের হাতের কাছেই এমন কিছু খাবার আছে যা খেলে সহজেই এসিডিটি প্রতিরোধ করা যায়।

জেনে নিন রমজানে এসিডিটি প্রতিরোধে খাবেন যেসব খাবার-

আদা
আদা এমন একটি ভেষজ উপাদান যা আমাদের অনেক কাজে লাগে। প্রতিবার খাদ্য গ্রহণের আধা ঘন্টা আগে ছোট এক টুকরো আদা খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা চলে যায়।

লং
গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভালো কাজ দেয় এই খাবারটি। দুইটি লং মুখে নিয়ে চিবালে এর রসটা এসিডিটি দূর করতে সাহায্য করবে।

তুলসী পাতা
এটি এসিডিটির সমস্যা দূর করতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ৫-৬ টি তুলসী পাতা চিবিয়ে খেলে দেখবেন এসিডিটি কমে গেছে।

পুদিনা পাতা
গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর করতে পুদিনা পাতার রসও বহুদিন ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। প্রতিদিন পুদিনা পাতার রস বা পাতা চিবিয়ে খেলে এসিডিটি ও বদহজম দূর হয়।

জিরা
এক চা চামচ জিরা ভেজে নিয়ে একটু ভেঙ্গে নিন। এরপর এই গুড়াটি একগ্লাস পানিতে মিশিয়ে প্রতিবার খাবারের সময় পান করুন। দেখবেন একেবারে ম্যাজিকের মতো কাজ করবে।

গুঁড়
বুক জ্বালাপোড়া এবং এসিডিটি থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করে গুড়। বুক জ্বালাপোড়া করার সঙ্গে সঙ্গে এক টুকরো গুঁড় মুখে নিয়ে সম্পূর্ণ গলে না যাওয়া পর্যন্ত রাখুন। তাতে ভালো ফল পাবেন। তবে ডায়বেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে এটি নিষিদ্ধ।

বোরহানী
টক দই, বীট লবণ ইত্যাদি নানা এসিড বিরোধী উপাদান দিয়ে তৈরি হয় বোরহানী। এটি হজমে খুবই সহায়ক ভূমিকা পালন করে। প্রতিদিন ভারি খাবারের পর একগ্লাস করে খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা অনেকাংশে দূর হয়।

দুধ
দুধও এসিডিটি কমাতে সাহায্য করে। কারণ এতে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম রয়েছে, যা পাকস্থলীর এসিড কমাতে সাহায্য করে। ফলে সহজেই এসিডিটির সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

মাঠা
দুধ এবং মাখন দিয়ে তৈরি মাঠা একসময় আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয় ছিল। সামান্য গোলমরিচের গুঁড়া যোগ করলে এসিডিটি দূর করতে এটি টনিকের মতো কাজ করে।

হাতের কাছেই যখন সব জিনিস পেয়ে যাচ্ছেন তাহলে আর এসিডিটির সমস্যায় ভুগবেন কেন? নিয়মিত উপরোক্ত খাবারগুলো খাওয়ার চেষ্টা করুন। তাতে এসিডিটির সমস্যা চিরতরে চলে যাওয়ার পাশাপাশি আপনি সুস্থও থাকবেন।

তথ্যসূত্র: ওয়েবসাইট