Home > জীবনধারা > ফ্যাট অথচ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী!

ফ্যাট অথচ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী!

1426659955যারা নিজের বেড়ে যাওয়া ওজন নিয়ন্ত্রণে সব সময় উদগ্রীব, ফ্যাট খাবারের নাম শুনলেই তাদের চোখ চড়কগাছ হয়ে যায়। অনেকের ধারণা, ডায়েটিং মানেই ফ্যাট খাবারকে একেবারে না বলে দেয়া। অনেকে আবার ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার মানেই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বলে জানেন। অথচ সব ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবারের বেলায় এই ধারণা ঠিক নয়। চিনে নিন এমন কিছু ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার, যা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য অত্যান্ত উপকারী।

বাদাম
বাদামে থাকা ফ্যাটকে ক্ষতিকর বলে ভুল করে থাকেন অনেকেই। আসল সত্যটা হল, বাদামে ফ্যাটের চেয়ে বেশি রয়েছে ফাইবার, ম্যাগনেসিয়াম ও মিনারেলস যা মুটিয়ে যাওয়া, হৃদপিণ্ডের সমস্যা ও ডায়বেটিস দূরে রাখে।

ডার্ক চকলেট
এক আউন্স ডার্ক চকলেটে রয়েছে মাত্র ৯ গ্রাম ফ্যাট। কিন্তু ডার্ক চকলেটের ৭০% কোকোয়াতে রয়েছে ফ্লেভানয়েডস যা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। গবেষণায় দেখা যায়, সপ্তাহে অন্তত ৫ দিন বা তার বেশি ডার্ক চকলেট খেলে হৃদপিণ্ডের সমস্যা অন্যান্যদের তুলনায় বেশ কম হয়। সুতরাং চকলেট মানেই খারাপ নয়।

অলিভ অয়েল
এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল রয়েছে ভিটামিন ই, কে এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান। অলিভ অয়েলের গুণ দেহের খারাপ কলেস্টোরল দূরে রাখে, উচ্চ রক্ত চাপের সমস্যা দূর করে, ইনফ্লেমেশন কমায় এবং হৃদপিণ্ডের স্বাস্থ্য উন্নত করে।

তৈলাক্ত মাছ
তৈলাক্ত মাছ অনেকেই খেতে চান না। কিন্তু মাছের তেলে রয়েছে ওমেগা৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। আপনার হৃদপিণ্ডকে নানা রকম সমস্যা থেকে রক্ষা, বিষণ্ণতা, স্মৃতিশক্তি লোপ পাওয়ার সমস্যা দূর করতে বিশেষ ভাবে কার্যকরী মাছের তেল।

পনির
অনেকে ভাবেন পনির একটি অস্বাস্থ্যকর ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার। মাত্র ৬.৭ গ্রামের একটি স্লাইস পনিরে রয়েছে প্রায় ১ গ্লাস দুধের গুণাবলী। পনিরে থাকা ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি১২, ফসফরাস, সেলেনিয়াম, প্রোটিনসহ আরও অনেক পুষ্টিগুণ।