Home > জীবনধারা > ত্বক চর্চায় বরফের ব্যবহার

ত্বক চর্চায় বরফের ব্যবহার

মেইকআপের আগে মুখে ভালো মতো বরফ ঘষে নেওয়ার পরামর্শ দেন অনেক মেইকআপ আর্টিস্ট। তবে এর কারণ আমাদের অনেকেরই জানা নেই। ত্বক সুন্দর রাখতে বরফ দারুণ কার্যকর। তাছাড়া বলিরেখার প্রভাব কমায়, লালচে ভাব ও ব্রণের হাত থেকেও বাঁচাতে সাহায্য করে বরফ। ত্বকে রক্ত চলাচলের পরিমাণ বাড়িয়ে সুস্থ রাখতেও সাহায্য করে।

ত্বক কোমল করে
ত্বকে বরফ ঘষলে ত্বক টানটান হয় এবং ত্বক আরও কোমল হয়। তাছাড়া খোলা লোমকূপ বন্ধ করতেও দারুণ কার্যকর বরফ।

প্রাইমার
মেইকআপ দীর্ঘস্থায়ী করতে মেইকআপের আগে ত্বকে প্রাইমার ব্যবহার করা হয়। তবে ত্বকে কিছু কিছু লোমকূপ বেশ বড় হয়ে যায়। এই কারণে মেইকআপ বসতে চায় না। তাই লোমকূপ বড় হয়ে গেলে প্রাইমার ব্যবহারের আগে ভালো মতো বরফ ঘষে নেওয়া যেতে পারে।

রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক করে
বরফের ঠাণ্ডাভাব ত্বকের রক্তসঞ্চালন স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। আর তাই ত্বকের ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে বরফ।

চোখ ফোলা কমায়
অনেকের ঘুম না হওয়া বা অন্য কোন কারণে চোখের নিচে ফুলে যেতে পারে। আর ত্বকের ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে বরফ। তাই চোখের নিচে ফুলে গেলে সেখানে খানিকটা বরফ ঘষে দেওয়া যেতে পারে।

বলিরেখা কমায়
বয়স বাড়লে ত্বকে বলিরেখা পড়তে শুরু করে। তবে বরফ বলিরেখার পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে।

ব্রণের লালচেভাব কমায়
ত্বকে ব্রণ হলে এর চারপাশে লালচে দাগ পরে। বরফ ওই লালচেভাব কমাতে সাহায্য করে।

বরফ ঘষার আগে খেয়াল রাখতে হবে যেন ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করা হয়। এরপর নরম একটি কাপড়ে বরফ মুড়ে বরফ গলতে শুরু করলে তা সারা মুখে ঘষে নিতে হবে। দু’তিন মিনিট সময় নিয়ে পুরো মুখের প্রতিটি অংশে ভালোভাবে বরফ ঘষতে হবে।

ত্বকে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে বরফ লাগিয়ে নিতে হবে। এরপর মুখে টোনার ও ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে হবে।