মাগুরায় মাতৃগর্ভে শিশু গুলিবিদ্ধ : আসামি যুবলীগ কর্মী ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

মাগুরায় মাতৃগর্ভে শিশু গুলিবিদ্ধের ঘটনায় দায়ের করা মামলার দুই নম্বর আসামি যুবলীগ কর্মী মেহেদী হাসান ওরফে আজিবর শেখ (৩৪) পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

সোমবার দিবাগত রাতে মাগুরা শহরের দোয়ারপাড় এলাকায় কথিত বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে বলে একাধিক বেসরকারি টিভি চ্যানেল জানায়।

বন্দুকযুদ্ধের পর ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলেও দাবি করেছে পুলিশ।

অবশ্য পৌর ছাত্রলীগের সাবেক এই নেতাকে সোমবার বিকেল ৫টার দিকেই মাগুরার শালিখা উপজেলার সীমাখালী থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। তবে তাকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে তখন আনুষ্ঠানিক কিছুই জানায়নি পুলিশ।

গত ২৩ জুলাই মাগুরা শহরের দোয়ারপাড় কারিগরপাড়ায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা নাজমা খাতুন (৩৫) গুলিবিদ্ধ হন। গুলি তার পেটের শিশুকে এফোঁড়-ওফোঁড় করে ফেলে।

পরে মাগুরা সদর হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে গৃহবধূ গুলিবিদ্ধ কন্যাশিশু জন্ম দেন। মা ও শিশু এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সংঘর্ষে পড়ে নাজমার চাচাশ্বশুর মমিন ভূঁইয়া (৬৫) মারা যান।

ওই ঘটনায় গত ২৬ জুলাই নিহত মমিন ভূঁইয়ার ছেলে রুবেল ভূঁইয়া জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সেন সুমনকে প্রধান আসামি করে ১৬ জনের বিরুদ্ধে মাগুরা সদর থানায় মামলা করেন। মামলার অন্য আসামিরা ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মী ও সমর্থক। আজিবর ছিলেন মামলার দুই নম্বর আসামি। মেহেদী হাসান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here