‘বিএনপিকে নির্বাচন থেকে সরানোর পাঁয়তারায় সরকার’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অব. আসম হান্নান শাহ অভিযোগ করেছেন, সিটি করপেরেশন  নির্বাচনে ভরাডুবির আশঙ্কায় সরকার বিএনপিকে নির্বাচন থেকে সরানোর পাঁয়তারা করছে। একইসঙ্গে সেনাবাহিনী মোতায়েন না করার বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত ‘ধোকার শামিল’ বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।
বৃহস্পতিবার দুপুরে ২০ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। হান্নান শাহ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২০ দলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক।
হান্নান শাহ বলেন, “আমরা যেমন শতভাগ নিশ্চিত আমাদের প্রার্থীরা সিটি নির্বাচনে জয়ী হবে, তেমনি সরকারও তার গোয়েন্দা সংস্থা ও নির্বাচনী মাঠ জরিপে বুঝতে পেরেছে তাদের সমর্থিত প্রার্থীদের ভরাডুবি হবে। তাই বিএনপিকে সিটি নির্বাচন থেকে সরানোর পাঁয়তারা করছে।”
তিনি বলেন, “সম্প্রতি খালেদা জিয়ার গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ও হামলা চালানোর ঘটনা পরিকল্পিত। ইচ্ছা করেই ট্রাফিক পুলিশ সিগন্যাল ফেলে সরকার সমর্থিত সন্ত্রাসীদের হামলা চালানোর সুযোগ করে দিয়েছে। তখন তারা নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে। এমনকি এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীদের দুই একজনকে পুলিশের সঙ্গে তাল মিলাতেও দেখা গেছে।”
বিএনপির এ শীর্ষনেতা বলেন, “৫ জানুয়ারি দেশের মানুষ ভোট দিতে পারেনি। তাই জনগণ ২৮ এপ্রিল সিটি নির্বাচনে ভোট দিয়ে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে হরণকৃত ভোটাধিকারের বদলা নেবে।”
নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের বিষয়ে ইসির সিদ্ধান্ত ধোকার শামিল মন্তব্য করে তিনি বলেন, “ঢাকা সিটিতে ভোটযুদ্ধ হবে। কাজেই ক্যান্টনমেন্টে সেনা সদস্য রেখে  সিটি নির্বাচনের সুষ্ঠুতা নিশ্চিত হতে পারে না।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here