প্রধানমন্ত্রী অবাস্তব, আজগুবী ও নিষ্ঠুর পরিহাস করেছেন-বুলু

বিএনপির5_72635 যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে অনতিবিলম্বে মুক্তি দেয়া কিংবা আদালতে হাজির করার জোর দাবি জানিয়েছে ২০ দলীয় জোট।

রোববার দুপুরে গণমাধ্যমে দেয়া এক বার্তায় দলটির আরেক যুগ্ম মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু ২০ দলের পক্ষে এ দাবি জানান। পাশাপাশি পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে উদ্ভুত অবস্থার দায়ভার এই অবৈধ খুনী সরকারকেই বহন করতে হবে বলেও হুশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়।

বিবৃতিতে বরকত উল্লাহ বুলু বলেন, “২০ দলীয় জোটের মুখপাত্র হিসাবে দায়িত্বরত বিএনপি’র যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে রাতের অন্ধকারে রাজধানীর উত্তরা এলাকার একটি বাসা থেকে দরোজা ভেঙ্গে ঢুকে চোখ বেঁধে হাতকড়া পরিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে ধরে নিয়ে যাবার পর পাঁচদিন অতিবাহিত হতে চলেছে। এই দীর্ঘ সময়েও তাকে ছেড়ে দেয়া কিংবা আদালতে হাজির করা হয়নি। উপরন্ত সরকার ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার পক্ষ থেকে গ্রেফতার বা আটকের কথাও অস্বীকার করে চলেছে। এতে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, সালাহ উদ্দিনের স্ত্রীর আবেদনের প্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত থেকে এই উদ্বেগজনক ঘটনার ব্যাপারে রুল জারি করা সত্ত্বেও সরকার সম্পূর্ণ নির্বিকার।

বরকত উল্লাহ বলেন, যতই সময় যাচ্ছে সালাহ উদ্দিন আহমেদের নিরাপত্তার ব্যাপারে আমাদের, তার পরিবারের ও দেশবাসীর উৎকণ্ঠা ততই বাড়ছে। কারণ এই সরকারের আমলে, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতা ইলিয়াস আলী, সাবেক এমপি সাইফুল ইসলাম হিরু, বিএনপি নেতা হুমায়ন পারভেজ ও ঢাকার নির্বাচিত কমিশনার চৌধুরী আলামসহ বিরোধী দলীয় শত শত নেতা-কর্মীকে গ্রেফতারের পর অস্বীকার এবং গুম ও খুন করার ভয়ংকর নজির স্থপিত হয়েছে। আবার গ্রেফতারের কথা অস্বীকারের পর নানা রকম নাটক সাজিয়ে অনেক বিলম্বে আটক দেখানোরও অনেক উদাহরণ রয়েছে। সালাহ উদ্দিনের ব্যাপারে এ সরকার কোন সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং তার ভাগ্যে কী ঘটেছে বা ঘটতে যাচ্ছে তা এখনো আমাদের অজ্ঞাত। তবে আমরা তাকে সুস্থ অবস্থায় ফিরে পেতে চাই।

তিনি বলেন, সালাহ উদ্দিনকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ময়লার বস্তায় করে পাচার করে দিয়ে থাকতে পারেন বলে গতকাল শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে অবাস্তব, আজগুবী ও নিষ্ঠুর পরিহাস করেছেন তা নিন্দা জানাবার ভাষা আমাদের নেই। দেশবাসী তার কাছ থেকে দায়িত্বশীল বক্তব্য আশা করে। এটা দায়িত্বহীন বা বিকৃত মানসিকতার মস্করা নয়। এমন একটি গুরুতর বিষয় নিয়ে এ ধরনের বিদ্রুপাত্মক উক্তি করে সরকার তার দায় এড়াতে পারে না। অবৈধ পন্থায় ক্ষমতাসীন হলেও শাসন-কর্তৃত্ব তাদের করায়ত্বে। কাজেই প্রতিটি নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা তাদেরই দায়িত্ব।

বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব বলেন, বহু রাজনৈতিক নেতা-কর্মীকে অপহরণ, গুম ও খুন করে তা হজম করতে করতে বর্তমান অবৈধ সরকারের দুঃসাহস এতটাই বেড়েছে যে, তারা ক্রমাগত উপরের দিকে হাত বাড়াচ্ছে। সালাহ উদ্দিন এদের নিষ্ঠুর দুঃসাহসিকতার সর্বশেষ দৃষ্টান্ত। বাংলাদেশের মানুষ কখনও খুনী সরকারকে সহ্য করে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here