আজ রাত ১২টার মধ্যে প্রচারসামগ্রী না সরালে শাস্তি

08_200778ঢাকা ও চট্টগ্রামে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আগাম প্রচারমূলক সব ব্যানার, পোস্টার, বিলবোর্ড নির্বাচন কমিশনের বেঁধে দেওয়া সময়সীমার মধ্যে সরিয়ে নেওয়া না হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ছয় মাস পর্যন্ত কারাদণ্ড অথবা ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড দেওয়া হতে পারে। এ ছাড়া এ অপরাধের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থিতাও বাতিল করা হতে পারে। সিটি করপোরেশন (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালার এ-সংক্রান্ত বিধিগুলো উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশন (ইসি) থেকে এসব বিধান কঠোরভাবে প্রতিপালনের জন্য রিটার্নিং অফিসারদের লিখিত নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আগাম প্রচারসামগ্রী সরানোর এই সময়সীমা কখন শেষ হবে তা ইসির জারি করা নির্দেশনায় উল্লেখ নেই। তবে জানতে চাইলে ইসি সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলি গতকাল বিকেলে বলেন, ওই সময়সীমা শেষ হচ্ছে ২০ মার্চ শুক্রবার রাত ১২টায়।

এদিকে অবৈধ এসব প্রচারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পুলিশ ও র‌্যাবকেও গতকাল ইসি সচিবালয় থেকে আলাদা চিঠিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এতে ২০ মার্চ রাত ১২টার মধ্যে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নিজ উদ্যোগে ও নিজ খরচে প্রচারসামগ্রী সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

গতকাল ইসি সচিবালয়ের যুগ্ম সচিবের সই করা নির্দেশনায় বলা হয়, সিটি করপোরেশনগুলোর বেশির ভাগ এলাকায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারমূলক বা শুভেচ্ছা জানিয়ে বিভিন্ন ধরনের পোস্টার, স্টিকার, ব্যানার, বিলবোর্ড, লিফলেট লাগানো হয়েছে বা দেয়াল লিখন দেখা যাচ্ছে। এ ধরনের কার্যক্রম আচরণ বিধিমালা বা নির্বাচনী আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। নির্বাচন কমিশন ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে এ ধরনের প্রচারসামগ্রী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নিজ উদ্যোগে ও নিজ খরচে সরিয়ে ফেলার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে।

এর আগে বুধবার বিকেলে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আগাম প্রচারমূলক সব পোস্টার, বিলবোর্ড নিজ দায়িত্বে সরিয়ে ফেলার জন্য সংশ্লিষ্ট সম্ভাব্য প্রার্থীদের নির্দেশনা দিয়ে বলেছিলেন, তা না হলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সিইসির ওই বক্তব্যের সময়কেই যদি ৪৮ ঘণ্টা সময়সীমার শুরু ধরা হয় তাহলে আজ শুক্রবার বিকেলেই ওই সময়সীমা শেষ হওয়ার কথা। আবার ইসি সচিবালয় থেকে এ বিষয়ে নির্দেশনা জারির সময়টিকে শুরু ধরা হলে ওই সময়সীমা শেষ হবে আগামীকাল শনিবার সকালে। এই বিভ্রান্তি সম্পর্কে জানতে চাইলে ইসি সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলি গতকাল বিকেলে বলেন, ওই সময়সীমা শেষ হচ্ছে ২০ মার্চ শুক্রবার রাত ১২টায়।

অবৈধ প্রচারের তথ্য সংগ্রহ শুরু : এদিকে নির্বাচনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং অফিসার মিহির সারওয়ার মোর্শেদ এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং অফিসার মো. শাহ আলম গত রাতে কালের কণ্ঠকে জানান, গতকাল থেকেই এ দুই নির্বাচনী এলাকায় কোথায় কোথায় কাদের পোস্টার, স্টিকার, ব্যানার, বিলবোর্ড, লিফলেট ও দেয়াল লিখন রয়েছে তা চিহ্নিত করা এবং এসবের ছবি তুলে রাখার জন্য নির্বাচন কর্মকর্তাদের বিশেষ অভিযান শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে কয়েকটি দল কাজ করছে।

মনোনয়ন ফরম নিলেন একজন : এদিকে ঢাকা উত্তরের রিটার্নিং অফিসার মো. শাহ আলম জানান, গতকাল তাঁর এলাকার ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডে মাত্র একজন সম্ভাব্য কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তাঁর নাম সিদ্দিকুর রহমান। আর দক্ষিণের রিটার্নিং অফিসার মিহির সারওয়ার মোর্শেদ জানান, তাঁর এলাকায় গতকাল কেউ মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেননি। তবে মনোনয়নপত্র দাখিলের বিষয়ে সম্ভাব্য একজন মেয়র পদপ্রার্থী ও বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর পদপ্রার্থী নিয়ম-কানুন জানতে গিয়েছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here