মায়ের ‘শেষ আদরে’ প্রাণ ফিরল সন্তানের

ইংরেজিতে একটি কথা আছে, দ্য পাওয়ার অফ লাভ অর্থাৎ ‘ভালোবাসার শক্তি’। এর জ্বলন্ত উদাহরণ হিসাবে বলা যেতে পারে অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের বাসিন্দা কেট ওগ-এর কথা। এই মায়ের ভালোবাসায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে তার সদ্যজাত সন্তান।
সালটা ২০১০। দীর্ঘ দিন ধরে কেট এবং ডেভ দম্পতি সন্তানের জন্য হাপিত্যেস করছিলেন। ওই বছরই তাদের ইচ্ছা পূর্ণ হচ্ছিল। কিন্তু সমস্যাও ছিল একটা। শারীরিক কারণে গর্ভবতী হওয়ার ২৬ সপ্তাহের মধ্যেই প্রি-ম্যাচিওর যমজ বাচ্চার জন্ম দেন কেট। একটি ছেলে ও একটি মেয়ে। কিন্তু জন্মের পরই ছেলের শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ২০ মিনিট ধরে অনেক চেষ্টা করেও শরীরে প্রাণের সঞ্চার হয়নি।
চিকিৎসকরাও হাল ছেড়ে দেন এক সময়। তবে কেট হাল ছাড়তে নারাজ ছিলেন। তিনি চিকিৎসকদের অনুরোধ করেন, শেষ বারের মতো একবার সন্তানকে একটু আদর করতে চান তিনি। অপারেশন থিয়েটারে সে
সময় উপস্থিত ছিলেন তার স্বামী ডেভ। কেট সকলকে ঘরের বাইরে যেতে বলেন। সদ্যজাত সন্তানকে পরম মমতায় শেষবারের মতো বুকে আগলে ধরেন।
ডেভও কেটের পাশে শুয়ে জড়িয়ে ধরেন স্ত্রী-পুত্রকে। মিনিট খানেকের মধ্যেই শ্বাস নিতে শুরু করে তাদের সন্তানটি। হঠাৎই প্রাণের সঞ্চার হয় তার মধ্যে। ডেভ দৌঁড়ে চিকিৎসকদের ডেকে আনেন। বেঁচে ওঠে তাদের সন্তান।
এখন সন্তানদের বয়স প্রায় পাঁচ বছর। তাদের রাখা হয়েছে এমিলি আর জেমি। একটু বড় হওয়ার পর সন্তানদের কাছে তাদের জন্মবৃত্তান্ত খুলে বলেছেন কেট আর ডেভ।
আশ্চর্যের বিষয়, গত পাঁচ বছরে এমিলি এবং জেমিকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে হয়নি। সম্পূর্ণ সুস্থ জীবনযাপন করছে দু’জনে।
সূত্র : ইন্টারনেট

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here