ঢাবিতে বর্ষবরণ উৎসবে শ্লীলতাহানির অভিযোগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্ষবরণের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন কয়েকজন নারী। কতিপয় দুষ্কৃতিকারী এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় বাধা দিতে গেলে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সভাপতি লিটন নন্দীসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলেও জানা গেছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাবির টিএসসিতে এই ঘটনা ঘটে। নারীদের শ্লীলতাহানির ঘটনার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক আমজাদ আলী পুলিশের দায়িত্বহীনতাকে দায়ী করেছেন।

তবে শাহবাগ থানার ওসি সিরাজুল ইসলামের দাবি, তারা তৎপর থাকলেও বিচ্ছিন্ন কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। তারা অপরাধীদের সনাক্ত করে আটকের চেষ্টা করছেন। বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাবি শাখার দপ্তর সম্পাদক খাদিজা সুলতানা প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ঢাবিতে আগত ভ্রমণার্থীদের মধ্য থেকে প্রথমে একজন নারীকে কতিপয় দুষ্কৃতিকারী বিবস্ত্র করার মত ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটায়। এসময় নিরাপত্তারক্ষাকারী বাহিনী নিষ্ক্রিয় ভূমিকা পালন করে। তাদের নিষ্ক্রিয়তার সুযোগে দুষ্কৃতিকারীরা আরও হিংস্র হয়ে এরূপ আরো কিছু ঘটনা ঘটায়।

বাংলা নতুন বছর উপলক্ষে মঙ্গলবার দিনভর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকায় ছিল বিভিন্ন অনুষ্ঠান, তাতে সারা ঢাকা থেকে অনেকে যোগ দিয়েছিলেন। এর মধ্যেই সন্ধ্যার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় সংঘবদ্ধ একদল যুবক নারীদের শ্লীলতাহানি ঘটায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। ঘটনাচলাকালীন বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষার্থী আক্রান্তদের সাহায্যে এগিয়ে যায়। দুষ্কৃতিকারীদের বাধা দিতে গিয়ে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি শাখার সভাপতি লিটন নন্দীসহ বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এই ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল বুধবার বেলা ১১টায় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ও দুপুর ১২টায় প্রগতিশীল ছাত্রজোট দুটি প্রতিবাদী সমাবেশ এবং বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাবি সংসদ একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ এম আমজাদ আলীকে বারবার ফোন দিয়েও পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here