খালেদা নিজেই গ্রেপ্তার চাচ্ছেন

image_194818.image_194802.hasina_parlament_dhaka_report_13894জনরোষ থেকে বাঁচতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নিজেই গ্রেপ্তার চাচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মাধ্যমে তিনি বিদেশিদের সহানুভূতি আদায়ের চেষ্টা করছেন বলে মনে করেন সংসদ নেতা। বুধবার জাতীয় সংসদে জাতীয় পার্টির জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলুর সম্পূরক এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন। তিনি আরো বলেন, ‘খালেদা জিয়া আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাচ্ছেন। তিনি নাকি আদালতে যাবেন না। তার নাকি নিরাপত্তার অভাব। যিনি মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে তার নাকি নিরাপত্তা দিতে হবে আমাদেরকে। তারপরেও দেশে যাতে আইনের শাসন চলে তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তারপরেও তিনি আদালতে যাননি। এখন কোর্ট যেভাবে নির্দেশ দেবে সে ভাবেই তার ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ শেখ হাসিনা বলেন, ‘তিনি মানুষ খুন করে এখন মানুষের সামনে বের হতে ভয় পাচ্ছেন। তিনি নাজিম উদ্দিন রোডের কারগারকেই নিরাপদ জায়গা মনে করছেন। জনরোষ থেকে বাঁচতে তিনি নিজেই গ্রেপ্তার হতে চাচ্ছেন।’ প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, তার সঙ্গে বিএনপির বেশ কয়েকজন সাবেক এমপির কথা হয়েছে, তারাও খালেদা জিয়ার এসব জঙ্গিবাদি কর্মকাণ্ড পছন্দ করেন না। তারা দেশের শান্তি চান। উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জারিকৃত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বুধবার বহাল রেখেছেন আদালত। তবে এ মামলার আরেক আসামি খালেদার ছেলে ও দলের সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে। এর আগে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছিলেন, খালেদা জিয়াকে আত্মসমর্পণ করতেই হবে। এর আগে তার উচ্চ আদালতে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। খালেদার আইনজীবীরা পরোয়ানার স্থগিতাদেশ চেয়ে গত মঙ্গলবার হাইকোর্টে আবেদন করলে আদালত বৃহস্পতিবার শুনানির দিন ধার্য করেন। এ কারণে বুধবার খালেদা আদালতে আত্মসমর্পণ করছেন কি না আর না করলে কী হবে এ নিয়ে নানা জল্পনা কল্পনা চলছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here