পরিচালককে বিশ্বাস করে অন্তরজ্বালায় মৌসুমী

অন্তর জ্বালা ছবি দুই নায়িকা ও দুই নায়ক নির্ভর ছবি। অথচ এই ছবির একটি গান আমার জীবন শেষ করে দিল। এমন কথাই জানালেন অন্তর জ্বালা ছবির অন্যতম নায়িকা মৌমিতা মৌ।
গত শুক্রবার সারাদেশে মুক্তি পেয়েছে মালেক আফসারী পরিচালিত ছবি অন্তর জ্বালা। এতে জুটি হয়ে অভিনয় করেছেন জায়েদ খান- পরীমনি এবং জয় ও নতুন নায়িকা তাহমিনা ইসরাত মৌসুমী ওরফে মৌমিতা মৌ।
ছবিটিতে মধু কই কই বিষ খাওয়াইলা শিরোনামে একটি গান ইতোমধ্যে বেশ সমালোচিত হয়েছে। গানটি জয় ও মৌর লিপে দেখেছেন দর্শক।
এতে নায়িকার পোশাক ও পারফর্ম নিয়ে অন্তজাল দুনিয়ায় চলছে সমালোচনা। সেই সমালোচনা নিয়ে এবার মুখ খুললেন নায়িকা।
ফেসবুকে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তিনি জানা, “অন্তর জ্বালা” এই জ্বালা শুধু আমাকেই জ্বালিয়ে দিলো। অনেক স্বপ্ন অনেক আশা নিয়ে এই কাজটা করেছিলাম। অনেক বিশ্বাস এবং ভরসা করেছিলাম পরিচালকের উপর।
তিনি আক্ষেপ করে বলেন, বিনিময়ে কি পেলাম? খারাপ সমালোচনা। একটা গান আমাকে শেষ করে দিলো। আমার তো একটা পরিবার, ব্যক্তিগত জীবন, বন্ধুমহল আছে। তাদের কাছ থেকে আজ আমার কথা শুনতে হচ্ছে।
মৌ বলেন, দর্শক কি বলছে সেটা আপনারাই ভালো জানেন। এটা দুই নায়িকা নির্ভর ছবি। একজনকে উপরে উঠাতে হলে আরেকজনকে নিচে নামাতে হয়। এটাই ফিল্ম পলেটিকস।
তিনি প্রশ্ন করে বলেন, এই ছবিতে এইরকম গান কি খুব বেশি জরুরি ছিলো? কেন এইরকম একটা গান আমাকে দিয়ে করানো হলো? আজকে আমি যে প্রশ্নের সম্মুখীন হচ্ছি সেটার দায় কে নিবে?
মৌর ভাষায়, এই গানের স্যুটিংয়ের আগে আমাকে গান শুনানো এবং ড্রেস দেখানো হয়নি। কেনো এইরকম ড্রেস আমাকে পরানো হলো? এই গানটাতে দর্শক কি পেলো? আর আমি কি পেলাম?
তাহলে কেন এইরকম একটা গান দেওয়া হলো? এই গানটার জন্য ক্ষতি যা হবার আমারই হয়েছে। কি আর বলবো? সবসময় ফিল্ম পলেটিকস বলে একটা শব্দ শুনতাম। আজ হয়তো আমিই তার শিকার হলাম বলে তিনি উল্লেখ করেন।