‘আগের হত্যাগুলোর বিচার হলে গতকালের ঘটনা ঘটত না’

মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেছেন, যদি আগের ব্লগার হত্যাকাণ্ডগুলোর বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া যেত, দোষীদের শাস্তি দেয়া যেত, তাহলে গতকালের ঘটনা ঘটত না।

মিজানুর রহমান আজ রোববার কমিশনের কার্যালয়ে এসব কথা বলেন। ইরাকে গিয়ে প্রতারিত হয়ে ফিরে আসা ১৪ জন তাঁদের অভিযোগ জানাতে ওই কার্যালয়ে যান। সেখানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বিচারে শৈথিল্যের প্রশ্ন তুলে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, এই শৈথিল্য কেন? তা নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্ন আছে। প্রশাসনের মধ্যে ধর্মান্ধ লুকিয়ে আছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে হবে। থাকলে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে হবে।

দুর্বৃত্তদের হাতে গতকাল নিহত জাগৃতি প্রকাশনীর কর্ণধার ফয়সাল আরেফিন দীপনের ক্ষুব্ধ বাবা অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক বলেছেন, ‘আমি কোনো বিচার চাই না।’ এ প্রসঙ্গ টেনে মিজানুর রহমান বলেন, অভিজিতের বাবা কি বিচার চাননি? ওয়াশিকুরের বাবা কি বিচার চাননি? তিনি প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারা এমন কোনো বক্তব্য দেবেন না, যেটা ধর্মান্ধ গোষ্ঠীকে উৎসাহিত করে।’

আজকের অনুষ্ঠানে ইরাক ফেরত ১৪ জন তাঁদের প্রতারিত হওয়ার বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন। এ সময় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, এ বিষয়গুলো নিয়ে তাঁরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন।