মায়ের কোলে সুরাইয়া

অবশেষে মেয়েকে কোলে নিয়ে হাসি ফুটলো মায়ের মুখে। জন্ম দেওয়ার পর আজই প্রথম ছোট্ট শিশু সুরাইয়াকে দেওয়া হলো তাঁর কোলে। সবার উদ্দেশে বললেন, ‘দোয়া করেন, মেয়ে যেন আমার সুস্থ থাকে। অনেক দিন বাড়ি যাই না, জলদি মেয়েকে নিয়ে যেন বাড়ি ফিরতে পারি।’

মায়ের পেটে থাকা অবস্থায় গুলিবিদ্ধ হয় সুরাইয়া। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নবজাতক নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (এনআইসিইউ) রাখা হয়। সেখান থেকে নিয়ে বেলা পৌনে একটার দিকে পুরাতন ভবনের কেবিনে চিকিৎসাধীন মা নাজমা বেগমের কোলে তুলে দেন চিকিৎ​সকেরা।মায়ের কোলে নিশ্চিন্তে ঘুমাচ্ছে সুরাইয়া। ছবি: সাবিনা ইয়াসমিন

সুরাইয়ার চিকিৎ​সক সহযোগী অধ্যাপক কানিজ হাসিনা বলেন, ‘জীবনে প্রথম মায়ের পেটে গুলিবিদ্ধ শিশুকে চিকিৎসা দিতে হয়েছে। সবার চেষ্টায় সুরাইয়াকে তার মায়ের কোলে তুলে দিতে পারলাম।’ তিনি আরও বলেন, ‘সুরাইয়ার ওজন বাড়ছে, রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা স্বাভাবিক। আল্লাহর রহমতে শিশুটি এখন আশঙ্কামুক্ত বলা চলে।’

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান ছাড়াও এ সময় উপস্থিত ছিলেন বেশ কয়েকজন চিকিৎসক।

গত ২৩ জুলাই মাগুরায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে মাতৃগর্ভে শিশু সুরাইয়া গুলিবিদ্ধ হয়। সংকটাপন্ন অবস্থায় ২৫ জুলাই ভোরবেলা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সুরাইয়াকে ভর্তি করা হয়। পরে মা নাজমা বেগমকে একই হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হলেও দুজনকে আলাদা রাখা হয়।