বাংলাদেশি পাসপোর্টে ৫০ হাজার রোহিঙ্গা বিদেশে

জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে বিদেশের শ্রমবাজার দখল করে আছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্ম সংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে চট্টগ্রামের বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এ মন্তব্য করেন।

এসময় মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের শ্রমবাজার দখল করে বসে আছে রোহিঙ্গারা। অন্তত ৫০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে বিদেশে কাজ করছে। এদেশের পাসপোর্টধারী হওয়ায় তারা সেখানে কোন অপকর্ম করলে তার দায় পড়ছে আমাদের দেশের ওপর।’

এজন্য জন প্রতিনিধিদের দোষারোপ করে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বলেন, ‘এসব রেহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দিচ্ছি তো আমরা। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা চেয়ারম্যানরাইতো দুই হাজার, পাঁচ হাজার, দশ হাজার টাকার জন্য পাসপোর্ট ফরমে স্বাক্ষর করে বসেন। এসব ব্যাপারে আমাদের আরো দায়িত্ববান ও সচেতন হতে হবে।’

নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের স্বভাবটাই হচ্ছে উগ্র। তারা যে কোনো জায়গায় গিয়ে ঝগড়া-ফ্যাসাদে ঝড়িয়ে পড়ে। আর বিদেশ বাংলাদেশী পাসপোর্ট নিয়ে যাওয়ায় তাদের কুকর্মের দায়টা আমাদের ঘাড়ে এসে পড়ে। বাংলাদেশীদের জন্য নির্ধারিত শ্রম বাজারটিই তারা দখল করছে।’

এসময় বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী বলেন, ‘মালয়েশিয়ার শ্রম বাজারে বাংলাদেশী শ্রমিকের বিপুল চাহিদা রয়েছে। তারা আমাদের কাছ থেকে শ্রমিক নেয়া ছাড়া বিকল্প নেই। কিন্তু এরপরও মানুষ সরকারি ডাটা ব্যাংকে এন্ট্রি না করে সাগরপথে ঝুঁকি নিয়ে কেন সেখানে যেতে চায়? এই ধরণের মানবপাচার বন্ধে সরকার কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে। মাত্র ৬০ হাজার টাকায় সরকারের মাধ্যমে নির্বাচিত শ্রমিকরা মালয়েশিয়া যেতে পারবে।’

বিদেশে সংকুচিত শ্রমবাজার নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশে দক্ষ ও আধাদক্ষ শ্রমিকের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তবে এদেশের বেশিরভাগই শ্রমিক অদক্ষ। সেজন্য আমরা সরকারি উদ্যোগে ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করছি। এখন থেকে ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে বিদেশে পাঠানো হবে। দেশের প্রতিটি উপজেলায় ট্রেনিং সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হবে।’

এসময় প্রবাসীদের উন্নয়নে তাঁর মন্ত্রণালয়ের নেয়া বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের মহিউদ্দিন চৌধুরী, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুস সালাম, মফিজুর রহমান প্রমুখ,এহছানুল হায়দার চৌধুরী প্রমুখ।