বগুড়ায় পৃথক দুর্ঘটনায় দম্পতিসহ নিহত ৩

বগুড়া শহর ও ধুনটে সড়ক দুর্ঘটনায় এক দম্পতিসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এছাড়াও আহত হয়েছেন আরো তিনজন।

শনিবার সকাল ৭টায় শহরের গোহাইল রোডে দ্রুতগামী বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে রিফাত (২০) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী মারা গেছে। রিফাত বগুড়া শহরের কৈগাড়ী পূর্বপাড়ার লিটন মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, রিফাত ইয়াকুবিয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে ছোট বোনকে নামিয়ে দিয়ে মোটরসাইকেলে বাসায় ফিরছিল।

গোহাইল রোডের মিশন হাসপাতালের সামনে রাজশাহীগামী আগমনী পরিবহণের একটি যাত্রীবাহী বাসকে ওভারটেক করার চেষ্টা করে রিফাত।

এ সময় সামনে থেকে একটি যাত্রীবাহী রিকশার সঙ্গে তার মোটরসাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে সে ও রিকশার যাত্রীরা রাস্তার দুই পাশে ছিটকে পড়ে।

এ সময় দ্রুতগামী বাসটি তার ওপর দিয়ে চলে গেলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় রিকশাচালক ইসাহাক আলী এবং রিকশার দুজন যাত্রী আহত হয়েছেন।

বগুড়া সদর থানার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাকিউল ইসলাম দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নিহতের লাশ শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ দিকে ধুনট উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী এক দম্পতির মৃত্যু হয়েছে।

সকাল ৯টার দিকে উপজেলার সোনাহাটা বাজারের তিনমাথা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানান ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউর রহমান।

নিহতরা হলেন-উপজেলার জোরশিমুল গ্রামের মমতাজ উদ্দিন (৪৫) ও তার স্ত্রী শেফালী খাতুন (৩৫)।