দখলদারদের গুলিতে শহীদ দুই পা-হারা ফিলিস্তিনি ইব্রাহিম

ইব্রাহিম আবু তোরায়াহ। ২০০৮ সালে ইসরাইলি বিমান হামলায় দুই পা হারান। এ সমস্যা অবশ্য তার প্রতিরোধের আগুন নেভাতে পারেনি। জেরুজালেম ইস্যুতে প্রতিবাদে ঠিকই হাজির হয়েছিলেন স্বাধীন ফিলিস্তিনের পতাকা হাতে।

তবে ইসরাইলি দখলদার বাহিনীর গুলিতে শেষ পর্যন্ত জীবনের কাছে হার মানতে হয়েছে নিরস্ত্র ও দুই পাবিহীন ইব্রাহিমকে। খবর আলজাজিরার

শুক্রবার ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে ইব্রাহিম তোরায়াসহ আরও চার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

গাজায় ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ওই সংঘর্ষ চলাকালে ইসরাইলি এক সেনার গুলি ইব্রাহিমের মাথায় এসে লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

মিডলইস্ট মনিটরের খবরে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতির প্রতিবাদে গাজা ও পশ্চিমতীরে নতুন করে সংঘর্ষে ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে চার ফিলিস্তিনি নিহত হন। এতে আহত হন আরও ৯০০ জন।

এই চারজনকে নিয়ে সম্প্রতি বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহত ফিলিস্তিনির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ জনে। আহত হয়েছেন দুই হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর গাজায় বিক্ষোভকালে ইসরাইলি সেনার গুলিতে দুই ফিলিস্তিনি নিহত এবং ১৫০ জন আহত হন। অন্যদিকে অধিকৃত পশ্চিমতীরে দুই ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারী নিহত এবং ১০ জন আহত হন বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।