বাড়িতেই করতে পারেন প্রেগন্যান্সি টেস্ট

মা হওয়ার ইচ্ছা প্রতিটি মেয়ের মধ্যেই থাকে৷ তবে আকস্মিক প্রেগন্যান্সিতে অনেকেই প্রথমে টেস্ট করাতে যেতে চান না৷ বিশেষত অপ্রত্যাশিত প্রেগন্যান্সির ক্ষেত্রে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়৷ এক্ষেত্রে আপনি বাড়িতেই কিছু প্রেগন্যান্সি টেস্ট করাতে পারেন৷ প্রেগন্যান্সির কিছু সম্ভবনা যদি আপনার মধ্যে থেকে থাকে তাহলে প্রথমে আপনি ঘরেরই নিত্যপ্রয়োজনীয় কিছু জিনিষ দিয়ে টেস্ট করতে পারেন৷

ব্লিচিং পাউডার: শুনতে অবাক লাগলেও ব্লিচিং পাউডার দিয়ে টেস্ট করেই বুঝতে পারেন আপনি অন্তঃসত্ত্বা কি না৷ এক্ষেত্রে আপনাকে আধকাপ ব্লিচিং পাউডার নিতে হবে৷ দিনের প্রথম ইউরিন ওই ব্লিচিং পাউডারে দিয়ে দিন৷ দুটির মিশ্রণে যদি ফেনা তৈরি হয় তাহলে আপনি সন্তানসম্ভবা৷

পাইন সল: ফিনাইলের মতো একপ্রকার ঘর পরিস্কার করার তরল হল পাইন সল৷ এটির মাধ্যমেও আপনি প্রেগন্যান্সি টেস্ট করতে পারেন৷ আধকাপ পাইন সল নিন৷ তাতে দিনের প্রথম ইউরিন মেশান৷ পাইন সলের রঙ যা-ই হোক না কেন তা যদি আপানার ইউরিনের সঙ্গে মিশে রঙ পরিবর্তন করে, বুঝতে হবে আপনি প্রেগন্যান্ট৷

ডেনডেলিয়ন পাতা: ডেনডেলিয়ন একধরনের বন্য ফুল৷ এর পাতাও আপনাকে বলে দিতে পারে আপনি প্রেগন্যান্ট কি না৷ প্রথমে এই ফুলগাছ থেকে কয়েকটি পাতা নিয়ে ছায়ায় একটি প্লাস্টিকের উপরে রাখুন৷ এবার দিনের প্রথম ইউরিনে এটি দিয়ে দিন৷ ইউরিন শুষে নেয়ার পরে এর পরিবর্তন লক্ষ্য করুন৷ ১০মিনিট পরে যদি পাতাটির উপরে ফোস্কার মতো দাগ তৈরি হয় তাহলে আপনি প্রেগন্যান্ট৷

সরষে বাটা: যদি পিরিয়ডের নির্দিষ্ট দিন পার হয়ে যায় তাহলে তা প্রেগন্যান্সির লক্ষণ হতে পারে৷ কিন্তু এক্ষেত্রে প্রেগন্যান্ট না হয়ে শুধুমাত্র ডিলেড পিরিয়ডও হতে পারে৷ এক্ষেত্রে প্রেগন্যান্সি কনফার্ম করার জন্য ইষদুষ্ণ জলে সরষে পাউডার বা সরষে বাটা মিশিয়ে স্নান করুন৷ যদি আপনি প্রেগন্যান্ট না হন তাহলে পর দিনই আপনার পিরিয়ড হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকবে৷

তুনা জুস ও ভিনিগার: একটি কাপের চার ভাগের এক ভাগ তুনা মাছের তেল ও সমপরিমাণ ভিনিগার মেশান৷ এতে প্রেগন্যান্সি টেস্টের জন্য দিনের প্রথম ইউরিন মেশান৷ যদি এই মিশ্রণের রঙ পরিবর্তিত হয়ে সবুজ হয় তাহলে বুঝে নিতে হবে আপনি প্রেগন্যান্ট৷ কিন্তু যদি রঙ পরিবর্তিত হয়ে হলুদ অথবা কমলা হয় তাহলে আপনি প্রেগন্যান্ট নন৷

সাবান: প্রতিদিনের ব্যবহারের সাবানের সাহায্যেও বুঝতে পারবেন আপনি প্রেগন্যান্ট কি না৷ একটি সাবানের সঙ্গে দিনের শুরুর ইউরিন মেশান৷ এতে যদি ফেনা তৈরি হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনি প্রেগন্যান্ট।